রাতে আরামে ঘুমানোর জন্য ফাটাফাটি

feater_61216_28204

সাধারণত রাতে ঘুমানোর আগে আগে সবাই একবার বাথরুম সেরে ফেলেন। খুব দরকার না হলে বা ঘুম নিরবচ্ছিন্ন হলে বাকি ছয়-সাত ঘণ্টায় আর বাথরুমে যাওয়ার দরকার পড়ে না। কিন্তু কারও যদি নিয়মিত রাতে ঘুম ভেঙে দু-তিনবার বাথরুমে প্রস্রাব করতে যেতে হয়, তবে তা বিরক্তির উদ্রেক করে বৈকি। সে ক্ষেত্রে কতগুলো স্বাস্থ্য সমস্যার কথাও মনে রাখতে হবে।

  • সন্ধ্যার পর বেশি পানি, চা-কফি ইত্যাদি পান করলে রাতে প্রস্রাবের বেগ হতে পারে বেশি। আবার কিছু ওষুধের কারণেও তা হচ্ছে কি না, লক্ষ করুন।
  • অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস প্রস্রাব বেশি হওয়ার একটা প্রধান কারণ। ডায়াবেটিস ইনসিপিডাসে (এটি বিরল) সারা দিনে কয়েক লিটার প্রস্রাব হতে পারে।
  • নারীদের গর্ভকালীন সময়ে মূত্রথলির ওপর বাড়ন্ত জরায়ুর চাপ পড়ে। এতে রাতে বারবার প্রস্রাব হয়। একই কারণে পুরুষদের প্রস্টেট গ্রন্থি বড় হলেও রাতে বারবার বাথরুমে যেতে হয়।
  • প্রস্রাবে সংক্রমণ বা মূত্রথলিতে সংক্রমণ হলেও এমন সমস্যা হতে পারে। সঙ্গে জ্বর, প্রস্রাবে জ্বালা-ব্যথা থাকতে পারে।
  • বয়োবৃদ্ধ, মেনোপজ-পরবর্তী নারী এবং দীর্ঘদিনের ডায়াবেটিসের রোগীদের মূত্রথলির ধারণক্ষমতা কমে যায়। সে ক্ষেত্রে সামান্য প্রস্রাব জমা হলেই বেগ পায়।
  • অনিদ্রার ও মানসিক চাপও বারবার প্রস্রাবের জন্য দায়ী হতে পারে।

এমন সমস্যার ক্ষেত্রে সন্ধ্যার পর বেশি পানি বা পানীয় থেকে বিরত থাকুন। কেউ কেউ রাতে শোয়ার আগে অনেক ওষুধ খান, তাই পানিও খাওয়া পড়ে। চেষ্টা করুন রাতের খাবারের আগেই ওষুধগুলো খেয়ে ফেলতে। কোনো ওষুধের সময়সূচি পাল্টাতে হবে কি না, চিকিৎসকের সঙ্গে আলাপ করুন। রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণে আছে কি না বা প্রস্রাবে কোনো সংক্রমণ আছে কি না, তা-ও দেখে নিন।

ডা. মৌসুমী মরিয়ম সুলতানা
মেডিসিন ও কিডনি বিভাগ, ইউনাইটেড হাসপাতাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *